Computer

 

ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং একটি ৪ বছর মেয়াদী ৮ সেমিষ্টারের কোর্স। এখানে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার, গ্রাফিক্স ডিজাইন, ডাটা কমিউনিকেশন এন্ড নেটওয়ার্কিং, রোবোটিকস, মাইক্রোপ্রসেসর বেজড সিস্টেম ডিজাইন, এম্বেডেড সিস্টেম ডিজাইন, ডাটাবেজ প্রোগ্রামিং সহ কম্পিউটার প্রযুক্তির বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে হাতেকলমে শেখানো হয়। বর্তমান যুগ কম্পিউটার নির্ভর যুগ, সকল কলকারখানা, অফিস, ব্যবস্থাপনা এখন কম্পিউটার নির্ভর। ভার্চুয়াল জগতের এই পৃথীবিতে মানুষ দিন দিন কম্পিউটার নির্ভর হয়ে পড়ছে ফলে বাড়ছে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে পাশ করা দক্ষ প্রকৌশলীদের চাহিদা। বর্তমানে দেশের বাজারে অন্যতম জব সেক্টর হল কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বা আইসিটি নির্ভর।

কম্পিউটার বিভাগের কর্মক্ষেত্রঃ

কম্পিউটার বিভাগের কর্মক্ষেত্রের কথা বলতে গেলে বলতে হবে এখন কোথায় নেই কম্পিউটার থেকে পাশ করা শিক্ষার্থীদের চাকুরীর সুযোগ। প্রতিটি দপ্তর, প্রতিটি ইন্ডাষ্ট্রিতে এখন একজন বা একাধিক আইটি এক্সপার্ট বা কম্পিউটার প্রকৌশলী আবশ্যক। দেশের সরকারি প্রায় প্রতি ডিপার্টমেন্টে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে পাশ করা শিক্ষার্থীদের কাজের সুযোগ রয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ এখন বিশ্বের অন্যতম আউটসোর্সিং কান্ট্রি যার বড় একটি অংশ কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পর্কিত সেবা। দেশের ক্রমবর্ধমান আসিটি খাত ও সফটওয়্যার শিল্পে এবং কম্পিউটারাইজড বিশ্বে সর্বত্র খোলা রয়েছে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে পাশকৃত শিক্ষার্থীদের কর্মক্ষেত্র।

খাজা পলিটেকনিক  ইনষ্টিটিউটের কম্পিউটার বিভাগে কেন ভর্তি হবেন?

খাজা পলিটেকনিক  ইনষ্টিটিউটে কম্পিউটার বিভাগের জন্য রয়েছে আলাদা কম্পিউটার ল্যাব। যা একটি ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাদানকারী প্রতিষ্ঠানের জন্য অত্যাবশ্যক। এর সাথে সাথে খাজা পলিটেকনিক  ইনষ্টিটিউটে রয়েছে কম্পিউটার বিভাগের জন্য ৩ জন দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষক, যারা সবাই বিভিন্ন বিষয়ে ব্যাবহারিক কাজে দক্ষ। আধুনিক কম্পিউটার ল্যাব ও অন্যান্য বিষয়ের জন্য আমাদের রয়েছে ইলেকট্রনিক্স ও মাইক্রোপ্রেসেস- মাইক্রোকন্ট্রোলার ল্যাব। এছাড়া

খাজা পলিটেকনিক  ইনষ্টিটিউটে রয়েছে কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের জন্য বিভিন্ন বই সম্বলিত সমৃদ্ধ লাইব্রেরী। এখানকার কম্পিউটার বিভাগ থেকে পাশকৃত শিক্ষার্থীরা দেশের অনেক নামকরা সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে ভাল পজিশনে কাজ করছে। শিক্ষার্থীদের বাস্তব সম্মত শিক্ষা প্রদানের জন্য থিওরী ও ব্যবহারিক ক্লাসের পাশাপাশি ইন্ডাষ্ট্রিয়াল ট্যুর ও প্রজেক্ট ভিত্তিক শিক্ষা দেয়া হয়।

ভর্তির যোগ্যতাঃ

যে কোন বিভাগ হতে নূন্যতম ২.০০ জিপিএ সহ এসএসসি/সমমান পাশ ।

টিউশন ফিঃ

ভর্তি ফিঃ ৫০০০/- (একবার)

প্রতি মাসে বেতনঃ ১০০০/-  ( ৪ বছরে ৪৮ মাসের জন্য)

সেমিষ্টার ফিঃ ৬০০০/- (প্রতি ৬ মাস পর পর ৮ টি সেমিষ্টার)

৪ বছরে মোট খরচঃ ১,০৩,০০০/-

অন্যান্য সুবিধাঃ
# এসএসসির জিপি ভিত্তিক টিউশন ফি ১০% থেকে ১০০% মওকুফের সুযোগ। এ+ প্রাপ্তদের টিউশন ফি ব্যাতিত পড়ার সুযোগ।

# সরকারী ভাবে শিক্ষার্থীদের  ৩২,০০০ টাকা করে শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ ।

# ১০০% ছাত্রী ও ৫০% ছাত্রদের জন্য হালিমা-আকবর ফাউন্ডেশন কর্তৃক ৩২,০০০ টাকা উপবৃত্তি ও দরিদ্র মেধাবীদের বিশেষ সুবিধা।

# মেয়েদের জন্য মাত্র ৫১০০০ টাকায় ৪ বছরে পড়ার বিশেষ সুযোগ।

#  কোন প্রকার আলাদা প্রাইভেট টিউশন নেয়ার প্রয়োজন নেই।

# প্রতি বছর কোর্স সমাপনীর পরে যোগ্যতা সাপেক্ষে ক্যাম্পাসের সহায়তা সরাসরি চাকুরীর সুযোগ।

ভর্তির জন্য যোগাযোগঃ

খাজা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, মহাখালী,ঢাকা।

৫৮, শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ স্বরণী, রসুলবাগ, মহাখালী, ঢাকা।
ফোনঃ 02-9830591, 01753690891, 01945141239, 01623312444.

E-mail: khawjapolytechnic786@gmail.com, Facebook/kpi.dhaka.bd
Website(Official): www.khawjapolytechnicbd.com